তালার মুডাকলিয়ায় মৎস্য ঘেরের মাছ চুরি: ঘের মালিক ও তার চাচাকে পিটিয়ে জখম


প্রকাশিত : অক্টোবর ১৮, ২০১৯ ||

বদিউজ্জামান: তালার মুড়াকলিয়ায় মৎস্য ঘেরের বাঁধ কেটে অন্যের ঘেরের কয়েক লক্ষ টাকার মাছ নিজের ঘেরে ঢুকিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনার প্রতিবাদ করায় ঘের মালিক ও তার চাচাকে বেদম মারপিট করে মারাত্বক জখম করা হয়েছে।
জানা যায়, তালা উপজেলার মুড়াকলিয়া গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য গফুর সরদারের ছেলে মহাসিন সরদার (৩৫) মুড়াকলিয়া প্রাইমারী স্কুলের সামনে ৫০ বিঘা জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ মৎস্য ঘের করে আসছিল। চলতি বছর ওই ঘেরে ১ লাখ ৫১ হাজার ৭ শ’ গলদার পোনাসহ কয়েক শত মণ বিভিন্ন প্রজাতির সাদা মাছ ছাড়ে মহসিন সরদার। উক্ত মৎস্য ঘেরের পাশে লীজ ডীড নিয়ে অপর একটি ঘের করেন তালা সদরের ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জাকির হোসেন। কিন্তু গত বুধবার রাতের আধারে সরদার জাকির হোসেনের ঘের কর্মচারী মুডাকলিয়া গ্রামের মৃত: রহিম বক্সের ছেলে গনি মালঙ্গী (৩৫) মহসিনের ঘেরের বাঁধ কেটে তাদের (সরদার জাকিরের) ঘেরে মাছের সুস্বাদু খাদ্য দিয়ে অনুমানিক ১৫/১৬ লক্ষ্যাধিক টাকার মাছ মহাসিনের ঘের থেকে তাদের (সরদার জাকিরের) ঘেরে ঢুকিয়ে নেয়। ওই ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তেঁতুলিয়া বাজারে মহসিন ও তার চাচা আব্দুল ওয়াদুদ (৩২) গনি মালঙ্গীকে পেয়ে মাছ চুরির বিষয় জানতে চাইলে গনি মালঙ্গী ও তার বাহিনী মহসিন এবং তার চাচা আব্দুল ওয়াদুদকে বেদম মারপিট করে মারাত্বক জখম করে। বর্তমানে আব্দুল ওয়াদুদ সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। বিষয়টি নিয়ে পুন:রায় গতকাল সন্ধ্যায় ঘের মালিক মহাসিনকে তেঁতুলিয়া বাজারে জনৈক আলামিনের দোকান থেকে টেনে হেচড়ে বের করে বাজারে ফেলে চেয়ারম্যান সরদার জাকিরের নেতৃত্বে তার লোকজন গনি মালঙ্গী তার ভাই আব্দুল গফ্ফার এবং তাদের ছেলে লতিফ, বাবুল ও ফয়সালসহ আরও অনেকে মহাসিনকে বেদম মারপিট করে জখম করে। ওই ঘটনার খবর পেয়ে তালা থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশ এসে মহাসিনকে উদ্ধার করে। উল্লেখ্য, এসব ঘটনার বিষয়ে মহাসিন সরদার তালা থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ তার মামলাটি রেকর্ড করেননি বলে পত্রদূতকে জানান মহাসিন সরদার। তিনি এ ব্যাপারে পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।