বৃটিশ গবেষকদের তথ্য: বায়ু দূষণে বাড়ে হার্ট অ্যাটাক, অ্যাজমা


প্রকাশিত : অক্টোবর ২১, ২০১৯ ||

অনলাইন ডেস্ক: ভয়াবহ এক বার্তা দিয়েছেন বৃটিশ গবেষকরা। তারা বলছেন, বায়ু দূষণের কারণে বৃটেনে শত শত মানুষ হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হচ্ছেন। আক্রান্ত হচ্ছেন ভয়াবহ অ্যাজমায়। আকস্মিকভাবে বায়ুতে ধুলোবালি ও অন্যান্য দূষণের কারণে এমনটা ঘটছে বলে উল্লেখ করেছেন কিংস কলেজ লন্ডনের একদল গবেষক। তারা লন্ডন, বার্মিংহাম, ব্রিস্টল, ডারবি, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার, নটিংহ্যাম, অক্সফোর্ড ও সাউদাম্পটন থেকে প্রাপ্ত ডাটা পর্যালোচনা করে এসব তথ্য প্রকাশ করেছেন। বলা হয়েছে, বার্ষিক গড় মাত্রার সর্বোচ্চ অংকের অর্ধেক পর্যন্ত যখন বাতাসে দূষণের মাত্রা তখন গড়ে ১২৪টি হার্ট অ্যাটাকের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে। ইংল্যান্ডে জাতীয় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা সিমন স্টিভেনস বলেছেন, ‘হেলথ ইমার্জেন্সির’ পক্ষে এটা একটি প্রমাণ। এই যে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে, এটা অ্যাম্বুলেন্স কল করার ডাটার ওপর ভিত্তি করে করা হয়েছে।
হাসপাতালে ভর্তি হওয়া হার্টের রোগিদের বিষয়টি গণনার মধ্যে আনা হয় নি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

এই গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে যে, বায়ু দূষণের ফলে অল্প সময়ের মধ্যে স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি সৃষ্টি হচ্ছে। প্রতি বছর ইউরোপে যে ৫ লাখ মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে তার প্রধান কারণ এটি। ৯টি শহরের বায়ু দূষণের বিষয়ে যখন ওই গবেষণা করা হয় তখন বিভিন্ন হাসপাতালে স্ট্রোকে আক্রান্ত গড়ে ২৩১ জন রোগি ভর্তি ছিলেন। ১৯৩ টি শিশু ও প্রাপ্ত বয়স্ককে অ্যাজমার চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। কিংস কলেজ লন্ডনের এনভায়রনমেন্ট রিসার্স গ্রুপের ডা. হিদার ওয়ালটন বলেন, বায়ু দূষণ কমানোর নীতিই হতে পারে জীবনের ব্যাপ্তি বাড়ানোর সঙ্গে সম্পর্কিত।

লন্ডনে বায়ু দূষণ যখন সবচেয়ে বেশি থাকে তখন গড়ে ৮৭ জন মানুষ হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হন। ১৪৪ জন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। ৭৪টি শিশু ও ৩৩ জন পূর্ণ বয়স্ক মানুষ অ্যাজমার জন্য চিকিৎসা নেন। বার্মিংহামে হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হন কমপক্ষে ১২ জন। ২৭ জন আক্রান্ত হন স্ট্রোকে। ২৬ জন আক্রান্ত হন অ্যাজমায়। ব্রিস্টল, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার, নটিংহ্যাম, অক্সফোর্ড ও সাউদাম্পনে হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হন দুই থেকে ৬ জন। স্ট্রোকে আক্রান্ত হন ১৪ জন।

গবেষণায় বলা হয়েছে, বায়ু দূষণের কারণে দীর্ঘমেয়াদে যে ঝুঁকি বাড়তে পারে তা হলো ফুসফুস বড় হয়ে যেতে পারে। কম ওজন নিয়ে জন্ম নিতে পারে শিশু। কিংস কলেজের ওই গবেষকরা বলেছেন, বায়ু দূষণ ৫ ভাগের এক ভাগ কমিয়ে আনার মাধ্যমে ৯টি শহরে ফুসফুস ক্যান্সার শতকরা ৫ থেকে ৭ ভাগে নামিয়ে আনা যেতে পারে। এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে বুধবার অনুষ্ঠেয় ইন্টারন্যাশনাল ক্লিন এয়ার সামিটকে সামনে রেখে। এর আয়োজক লন্ডনের মেয়র সাদিক খান।