শ্যামনগরে বোনের নির্যাতনের বিচারের দাবীতে ভাইয়ের সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : অক্টোবর ২২, ২০১৯ ||

সুন্দরবনাঞ্চল (শ্যামনগর) প্রতিনিধি: মঙ্গলবার শ্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাবে শ্যামনগর উপজেলার হাওয়ালভাঙ্গি গ্রামের মো. জামাল উদ্দিন গাজীর পুত্র মো. আশরাফ হোসেন এক সংবাদ সম্মেলন করেন। তিনি সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তার বোন লতিফা খাতুনের সাথে ২০১৮ সালের ২২ অক্টোবর আশাশুনি উপজেলায় খরিয়াটি গ্রামে মফিজুল ইসলামের (২৭) সাথে বিবাহ হয়। গত ১৮-১০-১৯ তারিখে বোনের স্বামী তাকে ফোন করে জানান লতিফা খুবই অসুস্থ। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। খবর পেয়ে খুলনা মেডিকেলে যেয়ে দেখেন তার বোন মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছে এবং ১৯-১০-১৯ তারিখ রাত অনুমান ১টার সময় মারা যান। আশরাফ হোসেন বলেন, তার বোন মারা যাওয়ার পর তার দুলাভাই মৃত বোনকে ফেলে রেখে যান। পরে তাকে ফোন দিলে ফোনে হুমকি দেয় বলে দাবী করেন। তার বোনের মৃত্যুর বিষয়ে খুলনা সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় একটা জিডি করেন। জিডি নং ১০২২, তাং-১৯-১০-১৯। আশরাফ হোসেন লিখিত বক্তব্যে বলেন, জিডি অনুযায়ী এসআই সুব্রত মৃত দেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করেন এবং রিপোর্টে কয়েকটি স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে বলে জানান। লতিফা খাতুন আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান বলে জানান এবং এ অবস্থায় বোনের মৃত্যুর জন্য দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনার জন্য যথাযথ কতৃপক্ষের নিকট দাবি জানান।