কালিগঞ্জের ধলবাড়িয়ায় জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে বসতঘর নির্মাণের অভিযোগ


প্রকাশিত : October 29, 2019 ||

বিশেষ প্রতিনিধি: কালিগঞ্জের ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের নৈহাটি গ্রামের জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে বসতঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী এলাকাবাসী পক্ষে ওই গ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সালাম, রবিউল ইসলাম, জব্বার গাজী ও নাছির উদ্দিন থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বর্তমানে বিষয়টি নিয়ে ওই এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করেছে।

সরেজমিন ও লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নৈহাটি গ্রামের মানুষের চলাচলের জন্য দুই’শ বছরের পুরাতন একটি রাস্তা রয়েছে। এলাকাবার সাধারণ মানুষ এবং শিক্ষার্থীরা ওই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে। প্রায় একবছর পূর্বে নৈহাটি গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে সাকের হোসেন গাজী (৩০), তার বড় ভাই আকবার হোসেন গাজী (৩২), জলিল গাজীর ছেলে জামাল হোসেন গাজী, ফকির চাঁদ’র ছেলে খলিলুল রহমান (৬০) গং রাস্তা দখল করে বসতঘর নির্মাণের পায়তারা শুরু করে।

এলাকাবাসী বিষয়টি বুঝতে পেরে তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান’র নিকট অভিযোগ দায়ের করেন। সে সময় উপজেলা চেয়ারম্যান সরেজমিন তদন্ত করেন। তিনি জনসাধারণের পথ বাদ দিয়ে ঘর নির্মাণ নতুবা অন্য জায়গা দিয়ে পথের ব্যবস্থা করে তারপর ঘর নির্মাণের জন্য রায় দেন। উক্ত রায় মেনে নেন সাকের গাজী গং। এর কিছুদিন পর উপজেলা চেয়ারম্যান মৃত্যুবরণ করেন। এরপর থেকে সাকের গাজী গং পূণরায় রাস্তাটি দখলের চেষ্টায় পায়তারা করতে থাকে। এক পর্যায়ে সাকের গং ওই রাস্তার পাশ দিয়ে ঘর নির্মাণ শুরু করেন।

বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসী কালিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত করে রাস্তাটির বিষয়ে মিমাংসা না হওয়া পর্যন্ত রাস্তাটি যেভাবে আছে সেভাবেই থাকবে বলে উভয় পক্ষকে জানিয়ে দেন তিনি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার। কিন্তু সাকের গং কালিগঞ্জ সার্কেলের কথা অমান্য করে জনসাধারণের চলাচলের ওই রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়। এসময় স্থানীয় এলাকাবাসী বাঁধা দিলে সাকের গং দা, শাবল, লাঠি নিয়ে গ্রামবাসীদের মারতে উদ্যত হয়। এসময় গ্রামবাসী আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

বর্তমানে সাকের গং গ্রামের সাধারণ মানুষের নামে মিথ্যা মামলা দেয়াসহ তাদের বৌ ও মেয়েদের সম্ভ্রমহানি করবে বলে হুমকি প্রদান করছে বলে ওই অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন তারা। এমতাবস্থায় জনসাধারণের চলাচলের রাস্তাটি উন্মুক্ত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন জানিয়েছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।