দেবহাটার কুলিয়ায় ব্যাটারী ও ময়না পাখি চুরির অভিযোগে আটক এক


প্রকাশিত : অক্টোবর ২৯, ২০১৯ ||

নিজস্ব প্রতিনিধি: দেবহাটা উপজেলার কুলিয়ায় বালিয়াডাঙ্গা শাহ-আলমের বাড়ি থেকে ইজিবাইকের ব্যাটারী, ময়না পাখি ও রড চুরির অভিযোগে এক ব্যক্তি আটক হয়েছে। গ্রাম পুলিশের সহযোগিতার আরও দুই জন পলায়নের খরব পাওয়া গেছে। কুলিয়া ইউপি (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান আসাদুল ইসলাম জানান, কুলিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের শাহ আলমের বাড়ি থেকে কয়েকদিন আগে ইজিবাইকের চারটি ব্যাটারী (যার আনুমানিক মূল্য ৪৪ হাজার টাকা) একটি ময়না পাখি ও ৯ ব্যান্ডেল রড চুরি হয়। এরপর শাহ আলম কুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদে একটি অভিযোগ করেন। মঙ্গলবার সকালে গ্রামবাসি জানতে পারে চুরির মাল কুলিয়া মোড়লপাড়া গ্রামের জামাত আলী মোড়লের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৬) এর কাছে আছে। গ্রামবাসি সাইফুলকে নিয়ে কুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসে। সাইফুল ইসলামের কাছে জিজ্ঞাসা করলে সে জানায় বহেরা গ্রামের সুরত আলী সিরাজীর ছেলে মুন্না (৩০) ও কুলিয়া বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মৃত অলিউল্লাহ সরদারের ছেলে তহিদুল ইসলাম ওরফে বাবু (৩২) কাছ থেকে ৯ হাজার টাকা দিয়ে আমি ৪টি ব্যাটারী কিনেছি। তাৎক্ষণিক আমি গ্রাম পুলিশ হাবিবুর রহমান ও রহমতুল্লাহকে পাঠাই দুই জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে আসতে। কিন্তু তাদের অনেক দেরি দেখে আমি গ্রাম পুলিশের কাছে ফোন করি তারা জানায়, আমরা আসতেছি। এরপর গ্রাম পুলিশ রহমতুল্লাহ পরিষদে এসে জানায়, আমাদের দুই জনকে চা খাইতে দিয়েই মুন্না ও তহিদুল পালিয়েছে। এরপর আমি দেবহাটা থানা পুলিশকে খবর দিয়ে ৪টি ব্যাটারীসহ সাইফুল ইসলামকে এসআই শ্যামাপ্রসাদ ও এএসআই মাজেদুলের হাতে তুলে দিয়েছি।
চেয়ারম্যানের কথা অমান্য করে দুইজন চোরকে পালাতে সহযোগিতা করায় এই দুই গ্রাম পুলিশকে অবিলম্বে শাস্তি দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসি।