ভারী বর্ষণে বেনাপোলে বেগুন ও কাচা মরিচের খেত নষ্ট হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক


প্রকাশিত : নভেম্বর ৩, ২০১৯ ||

এম এ রহিম, বেনাপোল (যশোর): বেনাপোলে বেগুন ও কাঁচা মরিচের ফলন ও দাম ভাল হলেও বৃষ্টির কারনে খেত নষ্ট হয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন কৃষক। হতাশায় তারা। চাষীদের উটেছে মাথায় হাত।
কৃষি প্রধান এলাকা যশোরের শার্শা ও বেনাপোল। ধান পাট আখ গমসহ বিভিন্ন সবজি চাষে কৃষকেরা বছর জুড়ে থাকেন কর্মব্যাস্ত। তবে এবার বর্ষায় খেত নস্ট হওয়ায় দু:শ্চিন্তায় তারা। চলতি সবজি মৌসুমে গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে এলাকার অধিকাংশ বেগুন ও ঝাল খেত নষ্ট হয়ে গেছে। গোড়ায় ছত্রাক লেগে মরে গেছে গাছ। ঔষধ ছিটিয়েও হচ্ছেনা কাজ। যতই রোদ পড়ছে ততই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এসব সবজি খেত। দায় দেনা করে সবজি চাষ করে বিপাকে পড়েছেন কৃষকেরা, কৃষি দপ্তরের সহযোগিতা চান তারা
ক্ষতিগ্রস্ত সবজি চাষী কৃষক জাবেদ আলী ও কওসার আলী বলেন, মরিচ ও বেগুন লাভবান চাষ। বাজারে প্রতিকেজি মরিচ ও বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৪০ থকে ৬০টাকা কেজি। তবে ভারী বর্ষণে মরিচ খেতে নষ্ট হওয়ায় লোকসানে পড়েছেন তারা। পানি নিষ্কাষন ও ঔষধ ছিটিয়েও কাজ হচ্ছেনা।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সৌতম কুমার শীল বলেন, ভারী বৃষ্টির কারনে গোড়ায় ছত্রাক জমে উপজেলায় ৬হেক্টর জমিতে বেগুন ও মরিচ খেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতি পুশিয়ে নিতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে কৃষকদের সহযোগিতা পরামর্শ ও সবজি চাষে প্রশিক্ষণ দেওযা হচ্ছে। উপজেলায় স্থানীয় ও হাইব্রীড জাতের ২৭৫ হেক্টর জমিতে আগামও শীতকালীন বেগুন ও ১৮০হেক্টর জমিতে মরিচের চাষ হয়েছে বলে জানান কৃষি কর্মকর্তা।