কালিগঞ্জে আ.লীগের দু:সময়ের ৮০ নেতা-কর্মীকে সম্মাননা প্রদান


প্রকাশিত : নভেম্বর ৩, ২০১৯ ||

’৭৫ এর রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের পর এই প্রথম ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনে কালিগঞ্জে পালিত হলো জেল হত্যা দিবস। দিবসটি উপলক্ষে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা ও ৩ নভেম্বর জেলখানায় নির্মমভাবে জাতীয় চার নেতাকে হত্যার পর আওয়ামী লীগের দু:সময়ে যারা নিবেদিত প্রাণ কর্মী হিসেবে অদ্যাবধি দলের জন্য অসামান্য অবদান রেখেছেন, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার উত্তরসূরি হিসেবে এমন ৮০জন নেতা-কর্মীকে (জীবিত ও মরণোত্তর) সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। রোববার কালিগঞ্জের বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের পাদদেশে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জেলহত্যা দিবসের আলোচনা সভায় তাদের এই সম্মাননা প্রদান করা হয়।

কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদীর সভাপতিত্বে এবং উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমুল ইসলাম এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাহিত্য বি-চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এই সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় ৪ নেতার প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়।

সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে পরপরই কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদ মেহেদী দলের দুঃসময়ের কান্ডারী ৮০ রাজনীতিকের হাতে সম্মাননা স্মারক ক্রেস্ট তুলে দেন।

সম্মাননাপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের দু:সময়ের এই কান্ডারীরা হলেন, জেহের আলী, ডা. হযরত আলী, গাজী সাইদুর রহমান, ফেরাজতুল্ল্যাহ বিশ^াস, এড. মোবারক আলী, তারাপদ বোস, জিনতুল্লাহ মহাজন, ডা. সুরত আলী, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ ওয়াহেদুজ্জামান, শেখ নাসির উদ্দিন, শেখ আকবার আলী, খান আছাদুর রহমান, আব্দুল বারেক, শেখ আব্দুস সোবহান, গাজী আনিছুর রহমান, চঞ্চল কুমার মন্ডল, জিতেন্দ্রনাথ বর, দুর্গাপদ মন্ডল, ফেরাজতুল্লাহ গাজী, শামসুর রহমান, কাজী রফিকুজ্জামান, নরিম আলী মাস্টার, জিএম মহাতাপ উদ্দিন, আক্কাস আলী, এম আহমদ আলী, জিএম আব্দুল হামিদ, সরদার মতিয়ার রহমান, মোহাম্মদ আলী, বরকত আলী, শামসুর রহমান, ওয়াজেদ আলী গাজী, মনতেজ আলী, কাশেদ আলী, ইউনুস আলী, ফজলুর রহমান, গাজী আজিজুর রহমান, এড. রফিকুল এলাহী বিশ^াস প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ’৭৫ এর পট পরিবর্তনের পর বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের দাবিতে রাজপথে নামা ডা. হযরত আলীকে গোল্ড মেডেল প্রদান করা হয়।

সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণের পর অনুভূতি ব্যক্ত করে অধ্যাপক গাজী আজিজুর রহমান বলেন, সারাজীবন রাজনীতি করে শেষ জীবনে এসে এমন সম্মান পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। সারাদেশে এমন আয়োজন কখনও হয়েছে শুনিনি।

এদিকে, অনুষ্ঠানে জেল হত্যা দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোজাহার হোসেন কান্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান সরদার মতিয়ার রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা খান আছাদুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য নরীম আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক গাজী আজিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডিএম সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি দক্ষিণ শ্রীপুর ইউপি চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার সারকার, উপজেলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ছহিলউদ্দিন, নলতা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মাস্টার সামসুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দিপালী রাণী ঘোষ প্রমুখ।