দুর্নীতি রোধে বেনাপোলে পরামর্শক কমিটির সভা: বন্দরকে আনা হচ্ছে সিসিটিভির আওতায়


প্রকাশিত : নভেম্বর ৫, ২০১৯ ||

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি: দেশের প্রধান স্থলবন্দর বেনাপোল কাস্টম ও আইসিপি চেকপোস্ট, আমদানি রপ্তানি বাণিজ্যে স্বচ্ছতা গতি বাড়ানোসহ অনিয়ম দুর্নীতি রোধে পরামর্শক কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বন্দর ও কাস্টমসে গতি ফিরেছে। বাড়ছে রাজস্ব আহরণ। বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা রোধে সবার সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে বেনাপোল কাস্টম হাউজ কনফারেন্স রুমে কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হুসাইন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন যুগ্ম-কমিশনার সহিদুল ইসলাম, উত্তম চাকমা, বন্দর পরিচালক মামুন তরফদার, সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজনসহ সভাপত্বি নুরুজামান, যুগ্ম-সম্পাদক জামাল হোসেন, কাস্টম বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন, বাংলাদেশ ভারত চেম্বার অব কমার্সের উপ-কমিটির চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান, ইমিগ্রেশন ওসি মাসুম হোসেন। কাষ্টম, বন্দর, বিজিবি, পুলিশ ও বিভিন্ন সংগঠনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ক্রেন ফর ক্লিপসহ বিভিন্ন ইকুইপমেন্ট বৃদ্ধি, শনিবার কাজে গতি আনায়ন, কন্টিনাল হ্যান্ডলিংয়ের সিন্ধান্ত, রেলওয়ে আইসিটি স্থাপন, বন্দরকে এনবিআরের সাথে সরাসরি যুক্ত করে সিসি টিভি ক্যামেরার আওতায় আনা, যাত্রী সেবাই দু’দেশের কর্মকর্তাদের সাথে সমন্বয় করে মানবৃদ্ধি, মার্কস নাম্বার বাধ্যতামূলক করা ও পণ্য খালাসে গতি ফেরানো, দ্রুত সময়ের মধ্যে পণ্য খালাসে ব্যর্থ প্রতিষ্ঠানকে অবগত করানো, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্যের নিলাম বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এসআই কোটা ওয়াল্ড বাস্তবায়ন, উত্তরা মটর ও টিভিএস মটর আমদানিতে সহযোগিতা বৃদ্ধিসহ আধুনিক মানের ক্রেন সরবরাহের প্রস্তাবনা দেওয়া হয় সভায়। অচিরেই আরো জমি অধিগ্রহণসহ বিভিন্ন শেড এয়ার্ড, ভবন ও রাস্তা সম্প্রসারণের প্রস্তাব করা হয়। যাত্রী হয়রানি রোধে সব ধরনের যোগাযোগ স্থাপনের বিষয়ে আশ্বস্ত করেন কমিশনা বেলাল হুসাইন চৌধুরী।