খুলনায় মাছ-মাংস বিক্রিতে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা প্রদান: ব্যত্যয় ঘটলে আইনগত ব্যবস্থা


প্রকাশিত : নভেম্বর ৭, ২০১৯ ||

খুলনা কৃষি বিপণন অধিদপ্তর মাছ-মাংস বিক্রিতে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা জারি করেছে। নির্দেশনা না মানলে আগামী ১৬ নভেম্বর হতে অভিযান চালিয়ে প্রযোজ্য আইনে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
খুলনার কয়েকটি বাজারে মাছ-মাংস বিক্রেতারা তাজা মাছ বা মাংসের সাথে বাসি মাছ বা মাংস মিশিয়ে বিক্রি, বরফের কুচিসহ মাছ বিক্রি, বড় মাছের সাথে ছোট মাছ মিশিয়ে বিক্রি, সোনালি মুরগিকে দেশি মুরগি বলে বিক্রিসহ আরও অসাধু পথ অবলম্বন করে ক্রেতাদের প্রতারিত করে আসছে বলে লক্ষ্য করা যাচ্ছে।
কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের নির্দেশনায় বলা হয়েছে: বড়, মাঝারি, ছোট মাছ এবং তাজা ও বাসি মাছ বাছাই করে পৃথকভাবে দোকানে সাজিয়ে বিক্রি করতে হবে। দেশি মুরগি, সোনালি মুরগি, কক, ব্রয়লার আলাদা আলাদা খাঁচায় রেখে মূল্য তালিকা লাগিয়ে বেঁচা-কেনা করতে হবে। খাঁসি, বকরি ও ভেড়ার মাংস পৃথকভাবে চিহ্নিত করে বিক্রি করতে হবে। পাশাপাশি মাছ বিক্রিতে পরিমাপের সময় অতিরিক্ত পানি অথবা বরফকুচিসহ ওজন করা বা ওজনে কম দেওয়া যাবে না।
এই সকল নির্দেশনার ব্যত্যয় ঘটলে ১৬ নভেম্বর থেকে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। তথ্য বিবরণী