দেবহাটায় আশার আলোর পরিচালকের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


প্রকাশিত : নভেম্বর ৮, ২০১৯ ||

দেবহাটা ব্যুরো: দেবহাটার আশার আলো এনজিও’র পরিচালক আবু আব্দুল্লাহ আল আজাদ ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের বিরুদ্ধে এক অসহায় পরিবারের নিরানব্বই বছরের বন্দোবস্তকৃত জমি দখলে নিতে হামলা, মারপিটসহ সীমাহীন হয়রানীর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টায় দেবহাটা প্রেসক্লাবে সংবাদ এ সম্মেলন করেন সখিপুর সরকারি কেবিএ কলেজ সংলঘœ এলাকার মুনসুর আলী গাজীর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মোস্তাফিজুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, গত ইং ০১-১১-২০১৭ তারিখে সখিপুর মৌজার ১৯৯৯ খতিয়ানের ২০৬৫ দাগের ৩২ শতক জমি সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বন্দোবস্ত কেস নং ৪৪৫/২০১০-১১ অনুযায়ী তার ও তার স্ত্রী আনোয়ারা খাতুনের নামে ২০১১ সাল থেকে ২১১১ সাল পর্যন্ত নিরানব্বই বছরের জন্য সখিপুর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মাধ্যমে দলিল করে বন্দোবস্ত দেন দেবহাটা উপজেলার তৎকালীন নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাফিজ আল আসাদ। ওই জমিটিতে বিগত প্রায় ৪০ বছর ধরে বসবাস করছেন তারা। কিন্তু বিগত বিএনপি-জামাত সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন সময় থেকে তাদের ওই বসবাসের ৩২ শতক জমি জোরপূর্বক দখলে নিতে অব্যাহত ষড়যন্ত্র, বসতঘর ভাংচুর, মারপিটসহ মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে সীমাহীন হয়রানী করে আসছে সখিপুরের আশার আলো নামের এনজিও’র পরিচালক স্থানীয় মৃত মোসলেম মল্লিকের ছেলে আবু আব্দুল্লাহ আল আজাদ। এসব ঘটনা নিয়ে তিনি বাদী হয়ে আবু আব্দুল্লাহ আল আজাদসহ তার নেতৃত্বে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা (নং-পি ১৪২১/১৮), তার স্ত্রী আনোয়ারা খাতুনকে মারপিটের ঘটনায় দেবহাটা থানায় একটি মামলা (নং ০১/১০৭) এবং তার বৃদ্ধ মা আলেয়া খাতুনকে মারপিটের ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে সাতক্ষীরার বিজ্ঞ আমলী ৭ নং আদালতে আরেকটি পৃথক মামলা (সিআরপি ৩৯/১৮ দেব) দায়ের করেন। বর্তমানে তিনটি মামলার এসব আসামীরা আদালত থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে আবারো তাদের জমি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। আশার আলোর পরিচালক আবু আব্দুল্লাহর নির্দেশে স্থানীয় ডাবলু গাজীর ছেলে রাজন হোসেন, মৃত আবু কারিকরের ছেলে আকরম কারিকর, আকরম কারিকরের ছেলে রায়হান, মৃত সবুর গাজীর ছেলে শাহিনুর ও শরিফ, শরিফের ছেলে দিশা, মনো গাজীর ছেলে মিঠু সহ তাদের লোকজন বিভিন্ন সময়ে তাদের বসতঘরে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটসহ স্বপরিবারে খুন জখমের হুমকি দিচ্ছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন মোস্তাফিজুর রহমান।